Saturday, May 14, 2016

বার্সাকে লা লিগা দিল সুয়ারেজ । সুব্রত ভট্টাচার্য - আনন্দবাজার

লা লিগা বার্সেলোনার জেতাটাই স্বাভাবিক। মেসিদের চ্যাম্পিয়নশিপ ম্যাচের প্রতিদ্বন্দ্বী গ্রানাদায় কোনও ভাল ফুটবলার নেই। কিন্তু ইউরোপের মতো ফুটবলের প্রথম বিশ্বে কোনও পেশাদার লিগে কেউ কাউকে ছেড়ে কথা বলে না। গ্রানাদার আবার অবনমন বাঁচানোর অঙ্ক ছিল শনিবারের ম্যাচে। তাই ওরা অঘটন ঘটিয়ে দিলেও দিতে পারত। অন্তত এক পয়েন্টও ছিনিয়ে।

কিন্তু উল্টো দিকে বার্সা যে! মেসি, নেইমার ছাড়াও ওদের আর একজন স্ট্রাইকার আছে। যাকে নিয়ে হয়তো অতটা বেশি মাতামাতি নেই। অথচ স্প্যানিশ লিগের প্রতিটা ডিফেন্ডারের রাতের ঘুম উড়িয়ে দিয়েছে। বুঝতেই পারছেন, লুইস সুয়ারেজের কথা বলছি। 
রোনাল্ডোর গোলেও পারল না রিয়াল।-এএফপি
বার্সেলোনার লা লিগা জেতার সবচেয়ে বড় কারণ তো সুয়ারেজ-ই। গ্রানাদার বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিক করল। সঙ্গে হাসতে হাসতে গোল্ডেন বুট নিয়েও চলে গেল। শেষ দিনে রোনাল্ডোর দু’গোল তাই না তার, না রিয়ালের কাজে আসল। গোটা মরসুমে কী খেলাটাই না খেলেছে সুয়ারেজ! বার্সা পিছিয়ে আছে, গোল লাগবে। বার্সা ড্র করার মুখে, গোল লাগবে। বার্সাকে জেতাতে হবে, গোল লাগবে। সব ম্যাচ সিচুয়েশনেই এ বার বার্সাকে বাঁচিয়েছে সুয়ারেজ। এ দিনও প্রথম ২০ মিনিট গোল পাচ্ছিল না মেসি-নেইমার। তার পরেই সেই সুন্দর মুভ। আর ঠিক সময় ঠিক জায়গায় থেকে সুয়ারেজ প্রথম গোলটা করে গেল। দ্বিতীয়টা হেডে। শেষটা ডান পায়ের শটে। ব্যস, লা লিগা ট্রফি লুইস এনরিকের হাতে। 
সুয়ারেজের মতো স্ট্রাইকার এই মুহূর্তে বিশ্বফুটবলে খুব কমই আছে। ও হচ্ছে আদর্শ ‘থ্র্যাশিং স্ট্রাইকার’। বিপক্ষ ডিফেন্ডারদের তাড়া করতে ভালবাসে। বলের জন্য প্রাণপণ লড়াই করে। ফিজিক্যাল খেলার দরকার পড়লে সেটাও খেলে।  প্রতিআক্রমণ থামাতে কড়া ট্যাকল করে। ডিফেন্ডারদের মাথা গরম করে দিতেও পিছপা নয়। সবার উপরে ফিনিশটাও করতে জানে খুব ভাল। কেউ খারাপ ফুটবলার হলে তো আর মেসি-রোনাল্ডোর লিগে হায়েস্ট স্কোরার হতে পারে না! 
সুয়ারেজ গোলের ভার নেওয়ায় মেসির উপর দিয়ে অনেক চাপ কমে গিয়েছে। প্লে-মেকার হওয়ার দিকে বেশি মনোযোগ দিয়েছে এ বার মেসি। মাঝমাঠে নেমে খেলতে পেরেছে। এতে বার্সার লাভই হয়েছে। কারণ, মেসির পাসের চোখও দুর্দান্ত। বার্সা ফের লা লিগা জেতায় একটা জিনিস পরিষ্কার হয়ে গেল। আধুনিক ফুটবলে ফরোয়ার্ড লাইন ভাল থাকলে বাকি কিছু নিয়ে ভাবতে হবে না। বার্সা ডিফেন্স অতটা ভাল নয়। তাতেও ফরোয়ার্ডদের জন্য বার্সা প্রায় বুঝতেই দেয়নি পিছনের ডিফেন্সটা কতটা দুর্বল! 

No comments:

Post a Comment