Sunday, April 17, 2016

জাডেজা বিয়ে করতে গেলেন তলোয়ার ঘুরিয়ে

রাজপুত বিয়ে বলে কথা। একটু নাচা-গানা হবে না, তাই হয় নাকি! তার উপর পাত্র রবীন্দ্র জাডেজার মতো জনপ্রিয় ভারতীয় ক্রিকেটার। তাই উদ্দাম উৎসব চলছিল মেজাজেই। তার আগে সঙ্গীত অনুষ্ঠানে জাডেজা স্বয়ং তলোয়ার নিয়ে নানা কসরৎ দেখিয়ে থ করে দিয়েছেন সবাইকে। নানা ভঙ্গিমায় শরীরের আশপাশে পেশাদার ফেন্সারদের মতো বিদু্ৎ গতিতে তলোয়ার ঘোরাচ্ছেন জাড্ডু, আর তাঁর উপর কেউ কেউ ওড়াচ্ছেন টাকা। সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে ঝটপট টুইট, শেয়ার, রিটুইট হতেও সময় লাগেনি।


উৎসবের পারদ আরও চড়ে যায় বর বেশে জাডেজা রওনা হওয়ার সময়। ফেব্রুয়ারিতে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার রিভা সোলাঙ্কির সঙ্গে বাগদান হওয়ার পর এতদিন যে মুহূর্তের অপেক্ষায় ছিলেন সবাই। তাই ঘোড়ায় বসে জাড্ডুকে ঘিরে তুমুল নাচ চলছিল বরযাত্রীদের। হঠাৎই জাডেজার ক’য়েক ফুট দূরত্বেই ভিড়ের মধ্যে কে যেন রিভলভার বের করে শূন্যে গুলিও ছুড়ে বসেন। তাও এক বার নয়, চার বার। উৎসবের আনন্দে প্রথমে কেউ ব্যপারটা আমলও দেননি। কিন্তু কিছুক্ষণ যেতেই টনক নড়ে সবার যখন গুলির শব্দে বিয়ে বাড়িতে পুলিশ গিয়ে হাজির হয়।
ভিডিও ফুটেজ দেখে এটা পরিষ্কার যে গুলি জাডেজার আত্মীয়দের মধ্যেই কেউ ছুড়েছিলেন। পুলিশের বক্তব্য গুলি যেই ছুড়ুক, সেটা উৎসবের জন্য ছোড়া হলেও বেআইনি। এমনকী লাইসেন্স থাকা বন্দুক থেকেও আত্মরক্ষা ছাড়া গুলি ছোড়া যায় না। একটি টিভি চ্যানেলকে ওই অঞ্চলের এক পুলিশ অফিসার বলেছেন, ‘‘কন্ট্রোল রুম থেকে আমরা একটা মেসেজ পেয়েছি এই নিয়ে। আমরা ভিডিও ফুটেজ পরীক্ষা করে দেখছি। দোষ প্রমাণিত হলে তিন বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে।’’
সোশ্যাল মিডিয়াতেও এই নিয়ে প্রবল ক্ষোভ ছড়াতে সময় লাগেনি। অনেকেই বলতে থাকেন, ক’দিন আগেই উত্তরপ্রদেশে একটি বিয়েতে একই ভাবে উৎসব করতে গিয়ে গুলি ছোড়ায় একটি মেয়ে মারা গিয়েছিল। জাডেজার বিয়েতে গুলিতে কেউ হতাহত হয়নি বলেই সেটাকে হাল্কা ভাবে দেখার কোনও প্রশ্ন নেই। দোষীদের কড়া শাস্তি হওয়া উচিত। পুলিশ এখনও দোষী ব্যক্তিকে চিহ্নিত করতে পারেনি। তদন্ত চলছে।
শোনা যাচ্ছে প্রিয় জাড্ডুর বিয়েতে এমএস ধোনি, সুরেশ রায়না, ডোয়েন ব্র্যাভো আর ভারতীয় দলের ক’য়েকজন ক্রিকেটার আসতে পারেন। ব্র্যাভোরা আসার পর যে উৎসবে আরও রোশনাই আসবে তাতে সন্দেহ নেই। কিন্তু তার আগে গুলি কাণ্ডের অস্বস্তিটাও যে জাড্ডুর খচখচানি বাড়াবে তাতে সন্দেহ নেই।

No comments:

Post a Comment